• সোমবার , ২২ জুলাই ২০২৪

১৩ কোম্পানির লভ্যাংশ ঘোষণা


প্রকাশিত: ৮:৫৭ পিএম, ৭ মার্চ ১৫ , শনিবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ১৬৫ বার

lovangso-স্টাফ রিপোর্টার.ঢাকা:
গত সপ্তাহজুড়ে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৩টি কোম্পানি লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সমাপ্ত হিসাব বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিগুলো লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ডিএসই সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিগুলো হচ্ছে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট বিডি, সিঙ্গার বাংলাদেশ, লিন্ডে বাংলাদেশ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক ও ইউনিয়ন ক্যাপিটাল লিমিটেড।

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক : সোস্যাল ইসালামী ব্যাংক ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ব্যাংকটি শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৭৪ পয়সা। ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১০ মার্চ।

গত বছর ব্যাংকটি ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

প্রাইম ব্যাংক : প্রাইম ব্যাংক ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। বছর শেষে ব্যাংকটির ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ১৮ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি নেট এ্যাসেট ভ্যালু (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৩ টাকা ৮৮ পয়সা। ব্যাংকটির এজিএম আগামী ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ মার্চ।

২০১৩ সালের জন্য কোম্পানিটি সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

পূবালী ব্যাংক : পূবালী ব্যাংক ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৫৪ পয়সা। এনএভি দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ১৪ পয়সায়। ব্যাংকটির এজিএম ৩১ মার্চ। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ মার্চ।

আগের বছর ব্যাংকটি ৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ব্যাংক এশিয়া : ব্যাংক এশিয়া ১৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ১০ শতাংশ বোনাস এবং ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ। ব্যাংকটির এজিএম ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ মার্চ।

গত বছর ব্যাংকটি ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।

হাইডেলবার্গ সিমেন্ট : হাইডেলবার্গ সিমেন্ট ৩৮০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। কোম্পানির এজিএম ১৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। রেকর্ড ডেট ১২ মার্চ।

গত বছরও কোম্পানিটি ৩৮০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

সিঙ্গার বাংলাদেশ : সিঙ্গার বাংলাদেশ ৬০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ৩৫ শতাংশ নগদ এবং ২৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ। এর আগে কোম্পানিটি সেপ্টেম্বর মাসে অন্তর্র্বতীকালীন ১৬০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। বছর শেষে কোম্পানির ইপিএস হয়েছে ৭ টাকা ৭৯ পয়সা। আর এনএভি ৫৩ টাকা ৬৪ পয়সা। এজিএমের তারিখ নির্ধারিত হয়েছে ২৮এপ্রিল। এর জন্য রেকর্ড ডেট ১০ মার্চ।

গত বছর কোম্পানিটি ১২৫ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

লিন্ডে বাংলাদেশ : লিন্ডে বাংলাদেশ ১১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর আগে জুলাই মাসে ২০০ শতাংশ অন্তর্র্বতী নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল। এ হিসাবে ২০১৪ সালের জন্য কোম্পানিটি মোট ৩১০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করল। কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৪০ টাকা ৭৫ পয়সা। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ মার্চ। কোম্পানিটির এজিএমের তারিখ এবং ভেন্যু পরবর্তীতে জানানো হবে।

আগের বছরও কোম্পানিটি ৩১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ : সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে ইপিএস করেছে ১ টাকা ২৭ পয়সা। কোম্পানির এনএভি হয়েছে ২৪ টাকা ৩৪ পয়সা। আগামী ২১ মে কোম্পানির এজিএম হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯ মার্চ।

আগের বছরও কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক : আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক ১৪ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ২০ পয়সা। বছর শেষে এনএভি ১৭ টাকা ৫৩ পয়সা। ব্যাংকটির এজিএম অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩১ মার্চ। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ মার্চ।

গত বছর ব্যাংকটি সাড়ে ১৩ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।

সাউথইস্ট ব্যাংক : সাউথইস্ট ব্যাংক ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে ইপিএস হয়েছে ৪ টাকা ১৮ পয়সা। এনএভি দাঁড়িয়েছে ২৬ টাকা ৭৭ পয়সা। ব্যাংকটির এজিএম ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ মার্চ।

গত বছর কোম্পানিটি ১৬ শতাংশ নগদ এবং ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক : ডাচ-বাংলা ব্যাংক ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে ইপিএস হয়েছে ১১ টাকা ৩ পয়সা। ব্যাংকটির এজিএম ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ মার্চ।

গত বছরও কোম্পানিটি ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ট্রাস্ট ব্যাংক : ট্রাস্ট ব্যাংক ১৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ৫ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ। আলোচিত বছরে ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৫ পয়সা। বছর শেষে এনএভি দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৮৫ পয়সা। ব্যাংকটির এজিএম ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ মার্চ।

গত বছর ব্যাংকটি ১২ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ইউনিয়ন ক্যাপিটাল : ইউনিয়ন ক্যাপিটাল ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৬৫ পয়সা। প্রতিষ্ঠানটির এজিএম ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ মার্চ।

গত বছরও ব্যাংকটি ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল।