• বৃহস্পতিবার , ১৩ জুন ২০২৪

সেক্সবোম্ব আাঁচল’কে নিয়ে তোলপাড়


প্রকাশিত: ২:২১ পিএম, ১৭ আগস্ট ১৬ , বুধবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ২৬৪৭ বার

বিনোদন রিপোর্টার  :  আজব প্রেম-আজব সেক্সি নায়িকা অাঁচল’কে নিয়ে তোলপাড় চলছে ডালিউডে। এবার আঁচল 4অভিনীত ‘সুলতানা বিবিয়ানা’ নামের একটি ছবি আসছে ঈদে মুক্তি পাবে।

বলা বাহুল্য  আজব প্রেম পুরো ছবিটি যেন সেক্স বোম্ব? সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা আঁচল আঁখি ছবিটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি।ছবিটি মুক্তির আগে এর একটি গান নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে।
3
‘আজ দু’চোখে পড়েছে এ মন’ শিরোনামে রোমান্টিক একটি গানে আঁচলকে বেশ আবেদনময়ী ও খোলামেলাভাবে উপস্থাপনা করা হয়েছিল।এরপরই বাজারমাত অাঁচলের।। গানটিতে তার সাথে পারফর্ম করেন চিত্রনায়ক বাপ্পি। এমন খোলামেলাভাবে আঁচলকে আগে কখনো দেখা যায়নি।

2তবে আঁচলের ওই খোলামেলা গান নিয়ে সিনেমাপ্রেমীরা পরিচালককেই দুষলেন। তাদের মন্তব্য আঁচল তো নিজের ইচ্ছায় এমন খোলামেলাভাবে নিজেকে দেখাননি। পরিচালক করিয়েছেন তাইতো এমন আপত্তিকর গানে পারফর্ম করেছেন। কোন নায়িকাই কি নিজেকে খোলামেলাভাবে দেখাতে চাননা।

এছাড়াও মুনমুন, ময়ূরী, পলি ও ঝুমকাদের মতো নায়িকাদের সময়কাল অশ্লীল ছবির সময়ে এমন দৃশ্য তো হরহামেসেই হতো। এমনকি অনেক গুণী নায়িকারাও সেসময় এমন অশ্লীল গানে পারফর্ম করেছেন। এছাড়াও বর্তমানে আইটেম গান অনেকে একে দুষ্ট গানও বলে থাকেন। এই আইটেম গানের নামে কতো অশ্লীলতাই তো ভাইরাসের মতো দেশীয় সিনেমায় ঢুকিয়ে দেয়া হচ্ছে।11

যাহোক এবার চিত্রনায়িকা আঁচল অভিনীত প্রথম ছবি রাজু আহাম্মেদ পরিচালিত ‘ভুল’আমেরিকার ডালাস শহরে সাউথ এশিয়া ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শনীর জন্য মনোনীত হয়েছে। আগামী ২৬ থেকে ২৮ আগস্ট আমেরিকার ডালাস শহরে অনুষ্ঠিতব্য ফেস্টিভ্যালে ছবিটি প্রদর্শিত হবে। এ ছাড়াও ‘ভুল’ আসছে নভেম্বরে ইতালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শনের জন্যও চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

এর আগে ছ1বিটি ২০১২ সালে দিল্লি ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ওপেনিং ফিল্মের সম্মাননা লাভ করে। এরপর ঢাকা আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পাবলিক চয়েস সেগম্যান্টে প্রদর্শিত হয়। ছবিটির বক্তব্য এইডস ও মানবতা নিয়ে।

একজন বিধবা নারীর সংগ্রাম, একজন ভুল ভেবে মরণব্যাধি এইডসের যন্ত্রণা নিয়ে বেঁচে থাকা যুবক ও একজন ভালোবাসার উদার মনের সাথী- এ তিনজনের ভালোবাসার আত্মত্যাগ ও সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা এ ছবিতে ফুটে উঠেছে। পরপর দুটি ফেস্টিভ্যালে নিজের সিনেমা নির্বাচিত হওয়ায় বেশ উচ্ছ্বসিত আঁচল।