• শুক্রবার , ১৯ জুলাই ২০২৪

সাবাস-গ্লোবাল চ্যালেঞ্জে বাংলাদেশী রোবট


প্রকাশিত: ৫:০২ পিএম, ১১ আগস্ট ১৮ , শনিবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ২৭০ বার

 

আসমা রহমান : সাবাস-বাংলাদেশ এ বিশ্ব অবাক তাকিয়ে রয়! এবার বাংলাদেশী রোবট গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ এ নামছে। এবার বিশ্বকে চমকে দেবে পাঁচ বাংলাদেশী। দেভখয়ে দেবে ডিজিটাল বাংলাদেশের নতুন দক্ষতা! হাঁ-এলক্ষ্য নিয়েই বাংলাদেশী রোবট যাচ্ছে মেক্সিকোতে। বাংলাদেশী পাঁচ শিক্ষার্থী তাদের রোবট নিয়ে গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ-এ নামবে।

জানা গেছে, মেক্সিকোতে অনুষ্ঠিতব্য ‘ফার্স্ট গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক রোবটিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের পাঁচ শিক্ষার্থীর একটি দল। তারা সেখানে ১৫৭টি দেশের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে। দেশের হয়ে যারা এই প্রতিযোগীতায় যাচ্ছে তারা হলেন- রাজিন আলী, সুজয় মাহমুদ, আনাহিতা আনোয়ারা, আরমান খসরু এবং লালেহ নাজ বার্গম্যান হোসেন। অংশগ্রহণকারীরা সবাই তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক সামাজিক উদ্যোগ টেক একাডেমির সঙ্গে সম্পৃক্ত। দলটির নেতৃত্বে এবং মেন্টর হিসেবে থাকবেন টেক একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সামস জাবের।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীরা বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজবেন। এবারের প্রতিযোগিতার থিম হয়েছে ‘অ্যানার্জি ইমপ্যাক্ট’। প্রতিযোগিতার বিষয়গুলো হচ্ছে- জ্বালানি শক্তির প্ল্যান্ট, নতুন জ্বালানি শক্তির সম্ভাবনা, সুসংহত শক্তিশালী ও টেকসই জ্বালানি।জানা গেছে, অংশগ্রহণকারীদের সবার বয়স ১৪ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে।

এর মধ্যে লালেহ ও আরমান সানবিম স্কুলের শিক্ষার্থী, রাজিন ও আনাহিতা স্যার জন উইলসন স্কুলের শিক্ষার্থী এবং সুজয় মাহমুদ ম্যানগ্রোভ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষার্থী। টিমের মধ্যে রাজিন ও আরমান প্রোগ্রামার হিসেবে কাজ করবে এবং অপর তিনজন অন্যান্য বিষয়গুলো দেখবে।

এবারের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বাংলাদেশের দলটি একটি রোবট নির্মাণ করেছে। রোবটটি রিমোট কন্ট্রলারের সাহায্যে চলাফেরা করতে সক্ষম এবং এটির যান্ত্রিক হাত দিয়ে কোনো বস্তু তুলতেও সক্ষম।আগামী ১৫ থেকে ১৮ আগস্ট মেক্সিকো সিটিতে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।