• সোমবার , ১৫ জুলাই ২০২৪

ফের ইউএস বাংলা বিমানের গাড়িতে মিলল প্রায় ১৪কেজি সোনা


প্রকাশিত: ৯:২০ পিএম, ২ ফেব্রুয়ারি ২৩ , বৃহস্পতিবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ৯১ বার

বিমান বন্দর প্রতিনিধি : ফের ইউএস বাংলার গাড়িতে মিলল বিপুল পরিমান চোরাচালানি সোনার বার। এবার দরা পড়ল গাড়িচালক। এর আগে ধরা পড়েছিল ইউ এস বাংলার বিমানবালা। কাস্টমস জানায়, গোয়েন্দা তথ্য ছিল ইউ এস বাংলার মালিকানাধীন যেসব পরিবহনের মাধ্যমে বিমানযাত্রীদের টার্মিনাল পর্যন্ত আনা নেয়া করা হয়, সেসব বাস এবং কারে লুকানো অবস্থায় স্বর্ণের বার চোরাচালান হবে। সেই সূত্র ধরে হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৩ কেজি ৯৯০ গ্রাম স্বর্ণবারসহ ইউ এস বাংলার বাসচালককে আটক করেছে ঢাকা কাস্টমস হাউজ। উদ্ধার স্বর্ণের আনুমানিক বাজারমূল্য সাড়ে ১৩ কোটি টাকা। আটক বাসচালকের নাম- মো. হারুন অর রশীদ।

বৃহস্পতিবার সকালে স্বর্ণগুলো উদ্ধারসহ তাকে আটক করা হয়। হারুন অর রশীদ গাজীপুর সদরের মুলাইদ গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে। রাজধানীর তুরাগ থানার বাউনিয়াবাদ এলাকায় বসবাস করেন।ঢাকা কাস্টমস হাউজের প্রধান কার্যালয়ের কর্মকর্তা রায়হানুল রাকিব বলেন, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের বিএস ৩৪৩ নম্বরের একটি ফ্লাইট সকাল সাতটা পাঁচ মিনিটে শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে। গোপন তথ্য ছিলো, ইউএস বাংলার মালিকানাধীন যেসব পরিবহনের মাধ্যমে বিমানযাত্রীদের টার্মিনাল পর্যন্ত আনা নেয়া করা হয়, সেসব বাস এবং কারে লুকানো অবস্থায় স্বর্ণের বার চোরাচালান হবে।

ওই তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকা কাস্টম হাউজ টিম বিমানবন্দরের ২১ নম্বর গেইটের সামনে অবস্থান নেয়।যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পর কাস্টমসের টিম বাস ও কারটি ব্যাপক তল্লাশি করে। এক পর্যায়ে (ঢাকা মেট্রো-স-১২-০১১৩) নম্বর বাসের চালক হারুন অর রশীদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে স্কচটেপ মোড়ানো চারটি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়।

পরে বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে বিমানবন্দরের কাস্টমস আগমনী হলের ব্যাগেজ কাউন্টারে ইনভেন্টিকালে চারটি প্যাকেটে ১২০টি স্বর্ণবার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ১৩ কেজি ৯৯০ গ্রাম। মূল্য ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা। কাস্টমস কর্মকর্তা বলেন, ওই বাসটিতে অন্য কোনো ব্যক্তি ছিল না তাই বাসচালক হারুন অর রশীদ কোনো সংঘবদ্ধ চোরাচালান চক্রের যোগসাজসে স্বর্ণবারগুলো চোরাচালানের চেষ্টা করেন।