• বৃহস্পতিবার , ১৩ জুন ২০২৪

জুয়ায় ধরা মুস্তাফিজদের বিট্রিশ বাংলাদেশী মালিক


প্রকাশিত: ১০:৪৮ পিএম, ২২ মে ২৪ , বুধবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ২৬ বার

স্পোর্টস রিপোর্টার : লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে ৬ ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্যতম ডাম্বুলা থান্ডার্স। সম্প্রতি যার মালিকানা কিনেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত ব্রিটিশ নাগরিক তামিম রহমান। বুধবার কলম্বো থেকে তার গ্রেফতারের পর ফ্র্যাঞ্চাইজিটির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর খবর অনুযায়ী, কলম্বোতে দুবাইয়ের উদ্দেশে বিমানে উঠার সময় তাকে গ্রেফতার করে শ্রীলঙ্কার পুলিশ। যতটুকু জানা গেছে, লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে দুর্নীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে এই ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক তামিম রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার পর ডাম্বুলা থান্ডার্সের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ (এলপিএল)। শ্রীলঙ্কার টি-টোয়েন্টি লিগটিতে এবার খেলার কথা ছিল বাংলাদেশ পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, বুধবার দুর্নীতির সন্দেহে তামিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত ব্রিটিশ নাগরিক। দুবাইয়ের উদ্দেশে যেতে উদ্যত তামিমকে ফ্লাইটে চড়ার আগেই কলম্বোর বিমানবন্দরে আটক করা হয়। পুলিশ ও অভিবাসন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এএফপি জানিয়েছে, তিনি ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

ডাম্বুলা থান্ডার্সের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করার কথা উল্লেখ করে এলপিএলের স্বত্বাধিকারী আইপিজি গ্রুপ এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘চুক্তি বাতিলের লক্ষ্য হচ্ছে এলপিএলের ভাবমূর্তি ও সুনাম অক্ষুণ্ন রাখা। সর্বোচ্চ মানের ক্রীড়াসুলভ আচরণ যাতে অংশগ্রহণকারী সবাই মেনে চলে।’

গ্রেপ্তারের পর তামিমকে ৩১ মে পর্যন্ত রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। ম্যাচ গড়াপেটা ও জুয়ার আয়োজন সংশ্লিষ্ট ক্রীড়া আইনের দুটি ধারায় তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে। ক্রীড়াক্ষেত্রে দুর্নীতির অপরাধ–সংশ্লিষ্ট পুলিশের বিশেষ একটি বিভাগ তামিমকে গ্রেপ্তার করে। চার বছর আগে এলপিএল চালু হওয়ার পর এবারই প্রথম কোনো কর্মকর্তাকে এভাবে আটক করা হলো। শ্রীলঙ্কার আইন অনুযায়ী, অভিযোগ প্রমাণ হলে বড় অঙ্কের জরিমানার সঙ্গে ১০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে।

দক্ষিণ এশীয় উপমহাদেশের প্রথম দেশ হিসেবে ম্যাচ গড়াপেটা–সংশ্লিষ্ট অপরাধকে ফৌজদারি ধারায় অন্তর্ভুক্ত করে শ্রীলঙ্কা। ২০১৯ সালের নভেম্বরে এ আইন পাস করা হয়।

গতকাল হয়ে যাওয়া এলপিএলের নিলামে ডাম্বুলা দলে নিয়েছে ২৪ জন খেলোয়াড়কে। এতে ৪ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার খরচ করেছে তারা। সর্বোচ্চ ৮০ হাজার ডলারে কেনা হয়েছে আফগান অলরাউন্ডার করিম জানাতকে।

মোস্তাফিজকে অবশ্য নিলামের আগে সরাসরি চুক্তিতে দলে নিয়েছিল ডাম্বুলা। এবারই প্রথম এলপিএলে খেলার কথা ছিল মোস্তাফিজের।

ডাম্বুলা থান্ডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজিটি এ মৌসুমেই প্রথমবার অংশ নিতে যাচ্ছিল। এর আগে দলটির নাম ছিল ডাম্বুলা অরা। মালিকানা পরিবর্তনের পর নামও পরিবর্তন হয় তাদের। তামিমের প্রতিষ্ঠিত ইম্পেরিয়াল স্পোর্টস গ্রুপ এর মালিকানায় ছিল।

তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করার পর এলপিএল এখন চার দলকে নিয়েই হবে নাকি নতুন কোনো দল নেওয়া হবে, সেটি এখনো নিশ্চিত নয়। আগামী ১ জুলাই শুরু হয়ে ২১ জুলাই ফাইনাল হওয়ার কথা এলপিএলের।