• সোমবার , ২২ জুলাই ২০২৪

জয়বাংলার ঘুষিতে ধপাস সাম্রাজ্যবাদ!


প্রকাশিত: ১২:৫১ এএম, ১৬ ডিসেম্বর ২৩ , শনিবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ৪৫ বার

বাংলাদেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার বিরুদ্ধে কোনো আপোস নয়-আর এ চেতনা থেকেই শিল্পীর প্রতিবাদী ঘুসি সাম্রাজ্যবাদকে!

 

শফিক রহমান : শিল্পীসমাজ এর তুলিতে এভাবেই ধপাস হয়ে পড়েছে সাম্রাজ্যবাদ! ‘জয়বাংলার’ এক বিশাল ঘুষিতে যেন চিৎপটাং অবস্থা! শিল্পীসমাজের আঁকা এই চিত্র দেখে অবাক এক শিক্ষার্থী! সাম্রাজ্যবাদের অবস্থা দেখে যেন বিস্মিত সে! বাংলাদেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার বিরুদ্ধে কোনো আপোস নয়-এটাই সেই চিত্রের সারমর্ম।আর এ চেতনা থেকেই শিল্পীর প্রতিবাদী ঘুসি সাম্রাজ্যবাদকে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও প্রত্যয়ে সাম্রাজ্যবাদ দূর করতে বিজয় দিবসের এই ক্ষণে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী শিল্পীসমাজের মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে জাতীয় পতাকা হস্তান্তর করে কর্মসূচির সূচনা করে শুক্রবার।

জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক শিল্পী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল বারক আলভির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা প্রদানের মাধ্যমে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বরণ করে নেয়া হয়।
এরপর বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ দেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে সংহত করার প্রত্যয়ে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী শিল্পীসমাজের কাছে জাতীয় পতাকা হস্তান্তর করেন।

এর আগে দেশের চারটি বিভাগীয় শহরে ‘সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে শিল্পীসমাজ’-এর ব্যানারে চিত্রকলা অঙ্কন ও প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। সেসব শিল্পকর্ম নিয়েই ঢাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে আয়োজিত হয়েছে এই প্রদর্শনী। এ আয়োজনের প্রতি সংহতি জানিয়ে শিল্পীরা কবিতা আবৃত্তি ও সংগীত পরিবেশন করেন।প্রদর্শনী চলবে শনিবার পর্যন্ত।

আমাদের ঢাবি সংবাদদাতা জানান, দেশ আমার, সিদ্ধান্ত আমার, নির্ভয়ে চলো বাংলাদেশ’ স্লোগানকে উপজীব্য করে শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পায়রা চত্বরে শুরু হয়েছে দু’দিনব্যাপী চিত্রপ্রদর্শনী। ‘সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে শিল্পীসমাজ’-এর আয়োজনে এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন পাঁচজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা প্রদানের মাধ্যমে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বরণ করে নেয়া হয়। এরপর বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ দেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে সংহত করার প্রত্যয়ে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী শিল্পীসমাজের কাছে জাতীয় পতাকা হস্তান্তর করেন।

সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী শিল্পীসমাজের পক্ষে পতাকা গ্রহণ করেন আহ্বায়ক অধ্যাপক আবুল বারক আলভি এবং সদস্য সচিব অধ্যাপক নিসার হোসেন। এরপর ক্যানভাসে স্বাক্ষর করে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জহির উদ্দিন জালাল (বিচ্ছু জালাল), আহসানুল হক মিনু, তসলিম হেলাল, দেওয়ান কামাল ও শামসুদ্দোহা।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী শিল্পীসমাজের সদস্য সচিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন।

অধ্যাপক আবুল বারক আলভির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের পক্ষে সীতেশ চন্দ্র বাছার, জহির উদ্দীন জালাল ও আহসানুল হক মিনু। এই আয়োজনকে ঘিরে সারা দেশ থেকে আসা শিল্পী, শিল্পানুরাগী ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী মানুষের উপস্থিতিতে টিএসসি চত্বর মুখর হয়ে ওঠে। প্রদর্শনীতে দেশের স্বনামধন্য শিল্পীদের শতাধিক চিত্রকর্ম স্থান পায়।