• সোমবার , ১৫ জুলাই ২০২৪

গুনাহ মাফে নতুন ভাগ্য লেখার রজনী পবিত্র শবেবরাত


প্রকাশিত: ৪:০৭ পিএম, ৭ মার্চ ২৩ , মঙ্গলবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ৯৩ বার

বিশেষ প্রতিনিধি : আজ হিজরি বর্ষপঞ্জির শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাত পবিত্র শবেবরাত। গুনাহ মাফের এ রজনীতে নতুন করে ভাগ্য লেখা হয়। পবিত্র এ রাতের ফজিলত সম্পর্কিত নবী করিম (সা.) বলেছেন, ‘আল্লাহতায়ালা অর্ধ শাবানের রাতে (শবেবরাত) সৃষ্টির প্রতি রহমতের দৃষ্টি দেন এবং মুশরিক ও বিদ্বেষ পোষণকারী ছাড়া আর সবাইকে ক্ষমা করে দেন।’ (মুসনাদে আহমদ : ৪/১৭৬)পবিত্র হাদিস গ্রন্থে এ রাতটিকে ‘লাইলাতুন নিসফি মিন শাবান’ বা ‘শাবান মাসের মধ্যরজনী’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। ফারসি ‘শব’ মানে রাত, আরবি ও ফারসিতে ‘বরাত’ মানে মুক্তি। তাই উম্মতে মোহাম্মদি শবেবরাতকে পাপমুক্তির রাত হিসেবে পালন করে থাকেন। বিশ্বাস করা হয়,

বাংলাদেশে যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে শবেবরাত পালন করবেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। পাপমোচন বা গুনাহ মুক্তির এ রাতে তারা আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনাসহ নিজের, পরিবারের ও মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করবেন। মহান আল্লাহর করুণা লাভের আশায় নফল নামাজ আদায়, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির-আসকার, কবর জিয়ারতসহ নানা ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে আজকের রাতটি অতিবাহিত করবেন। পবিত্র শবেবরাত উপলক্ষে আগামীকাল ৮ মার্চ বুধবার সরকারি ছুটি। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি তাঁর বাণীতে বলেন, সৌভাগ্যমি ত পবিত্র শবেবরাতের পূর্ণ ফজিলত আমাদের ওপর বর্ষিত হোক।

এই পবিত্র রজনীতে আমরা সর্বশক্তিমান আল্লাহর দরবারে অশেষ রহমত ও বরকত কামনার পাশাপাশি দেশের অব্যাহত অগ্রগতি, কল্যাণ এবং মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তর ঐক্যের প্রার্থনা জানাই। প্রধানমন্ত্রী তাঁর বাণীতে পবিত্র শবেবরাতের মাহাত্ম্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে মানবকল্যাণ ও দেশ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগের জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এ উপলক্ষে তিনি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব মুসলমানকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানান। পবিত্র শবেবরাত উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আজ বাদ মাগরিব রাজধানীতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ওয়াজ, দোয়া মাহফিলসহ পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত ও হামদ-নাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

বাদ এশা কোরআন-হাদিসের আলোকে বয়ান শেষে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। এরপর নফল নামাজ, তাহাজ্জুদের নামাজ ও মিলাদ শেষে বাদ ফজর আখেরি দোয়া অনুষ্ঠিত হবে। একইভাবে সারা দেশে বিভিন্ন মসজিদ, মাদরাসা, খানকা-দরবার শরিফসহ বিভিন্ন ধর্মীয়, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পবিত্র শবেবরাত পালনে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।