• সোমবার , ২২ জুলাই ২০২৪

এবার চেন্নাই মাতাবে মি.ফিজ


প্রকাশিত: ১১:২৬ পিএম, ১৪ মার্চ ২৪ , বৃহস্পতিবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ৪৮ বার

স্পোর্টস রিপোর্টার : এবার আইপিএলের আসর শুরু হবে আগামী ২২ মার্চ। উদ্বোধনী ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালোরের মুখোমুখি হবে শিরোপাধারী চেন্নাই। এই চেন্নাইতে এবার নাম লেখিয়েছে বাংলাদেশের মি. ফিজ কার্টার মাস্টার মুস্তাফিজ। ২কোটি রুপিতে মুস্তাফিজকে কিনেছে চেন্নাই।

যদিও চেনা ছন্দে মুস্তাফিজুর রহমান একটু পিছিয়ে আছে। কিন্তু ওর প্রতিভা অভিজ্ঞতার মূল্যায়ন করছে চেন্নাই। বাংলাদেশের হয়ে সবশেষ তিনটি টি-টোয়েন্টিতে খরুচে বোলিং করা বাঁহাতি এই পেসারের সামর্থ্যে দারুণ আস্থা ডোয়াইন ব্রাভোর। আইপিএলে মুস্তাফিজের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে উন্মুখ চেন্নাই সুপার কিংসের বোলিং কোচ।

আইপিএলে চার দলের হয়ে এখন পর্যন্ত ছয়টি আসরে খেলেছেন মুস্তাফিজ। শিরোপার স্বাদও পেয়েছেন একবার। এবার খেলবেন পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাইয়ের হয়ে।ক্যারিয়ারের শুরুতে ক্রিকেট বিশ্বে সাড়া ফেলে দেওয়া মুস্তাফিজের বোলিংয়ে সেই ধার এখন খুব একটা নেই। সাম্প্রতিক সময়ে বিবর্ণ পারফরম্যান্সের কারণে এবারের আইপিএলে তার দল পাওয়া নিয়েও শঙ্কা ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত ঠিকই দল পেয়ে যান ২৮ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

গত ডিসেম্বরের নিলামে দিনের শেষ সেট ‘এক্সিলারেটেড’ রাউন্ড থেকে মুস্তাফিজের জন্য বিড করে চেন্নাই। অন্য কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি আগ্রহ না দেখালে ২ কোটি রুপি ভিত্তিমূল্যেই তাকে পেয়ে যায় মাহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন দলটি।

২০১৫ সালে আন্তর্জাতিক আঙিনায় পা রেখে দুর্দান্ত বোলিং দিয়ে সবার নজর কাড়েন মুস্তাফিজ। পরের বছরের আইপিএলেই সুযোগ পেয়ে যান তিনি। নিজের অভিষেক আসরেই পান শিরোপার স্বাদ। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের একমাত্র শিরোপা জয়ে তার ছিল বড় অবদান।

এরপর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, রাজস্থান রয়্যালস ও দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে খেলেন মুস্তাফিজ। সব মিলিয়ে আইপিএলে ছয় আসরে ৪৮ ম্যাচ খেলে ওভারপ্রতি ৭.৯৩ রান দিয়ে তার উইকেট ৪৭টি। ১৬ রানে ৩ উইকেট তার সেরা বোলিং সব মিলিয়ে স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত ২৪০ ম্যাচে ওভারপ্রতি ৭.৪২ রান দিয়ে মুস্তাফিজের শিকার ২৯৩ উইকেট। পাঁচ উইকেট নিয়েছেন তিনবার, চার উইকেট পাঁচবার। সেরা বোলিং ২২ রানে পাঁচ উইকেট।

চেন্নাইয়ের বোলিং বিভাগে বড় তারকা নেই বললেই চলে। গত আসরে দিপক চাহার, তুষার দেশপান্ডে, মাহিশ থিকশানা, মাথিশা পাথিরানাদের নিয়ে ফাইনালে তারা হারিয়ে দেয় গুজরাট টাইটান্সকে। এবার মুস্তাফিজের সঙ্গে শার্দুল ঠাকুরকেও দলে নিয়েছে তারা।

আইপিএলে সবচেয়ে বেশি চেন্নাইয়ের হয়ে খেলা ব্রাভো এবার তাই আরও ভালো করতে আশাবাদী। পিটিআইকে বৃহস্পতিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক অলরাউন্ডার বলেন, আসছে আসরের জন্য মুখিয়ে আছেন তিনি।
আমাদের ভালো একটি দল রয়েছে। গত মৌসুমে যেখানে শেষ করেছি সেখান থেকে শুরু করতে চাই। অনভিজ্ঞ বোলিং আক্রমণ নিয়ে আমরা সত্যিই অনেক ভালো খেলেছি।

এই বছর তো আমরা শার্দুলকে (ঠাকুর) ফিরে পেয়েছি, যেটা বোনাস। ফিজও (মুস্তাফিজুর রহমান) অভিজ্ঞ এবং মান সম্পন্ন। (মাথিশা) পাথিরানা আছে, যাকে আমরা বেবি মালিঙ্গা ডাকি। তুষার দেশপান্ডে, যে গত মৌসুমে ভালো করেছিল। এই ছেলেদের সঙ্গে কাজ করতে পেরে ভালো লাগছে এবং আসন্ন মৌসুমের দিকে তাকিয়ে আছি।