• শুক্রবার , ১৯ জুলাই ২০২৪

ঈদে বাপের বাড়ি যেতে না পারায়-


প্রকাশিত: ৪:৪৯ পিএম, ১০ এপ্রিল ২৪ , বুধবার

নিউজটি পড়া হয়েছে ৩৫ বার

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুরের নকলায় ঈদে বাপের বাড়ি যেতে না পারায় স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে আত্মহত্যা করেছেন তারজিনা আক্তার স্মৃতি নামের এক গৃহবধূ। আজ বুধবার ভোররাতে উপজেলার জালালপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় তারজিনা আক্তার স্মৃতির স্বামী তানজিল আহমেদকে আটক করেছে পুলিশ। সে সিরাজগঞ্জে সদর উপজেলার গুনেরগাথী এলাকার আব্দুল মান্নানের পুত্র। আজ দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে নকলা থানা–পুলিশ নিশ্চিত করেছে।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানায়, সিরাগঞ্জের সদর উপজেলার সাহেদানগড়া এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিক মিয়ার কন্যার সাথে বিয়ে হয় একই উপজেলার গুনের গাথী গ্রামের তানজিল আহমেদের সঙ্গে। দেড় বছর আগে তাদের কোলজুড়ে আসে একটি পুত্র সন্তান।তানজিন আহমেদ প্রায় দুই বছর আগে ওয়ালটনের সেলস অফিসার হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। চার মাস আগে নকলায় বদলি হয়ে আসেন। সেই সুবাদে নকলা পৌরসভাধীন জালালপুর এলাকায় সাবেক পৌর কাউন্সিলর হাবুলের বাসায় ভাড়া থাকতেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঈদের ছুটিতে বাপের বাড়ি যাওয়ার জন্য তৈরি হন স্মৃতি। তানজিনেরও ছুটি পেতে রাত ৮টা বেজে যায়। সে সময় বাসায় গিয়ে তানজিন বলে ছোট ছেলেকে নিয়ে রাতে বাড়ি যাওয়া ঠিক হবে না। রাস্তায় গাড়ির প্রচুর চাপ। সকালে যাব। এই কথা বলায় স্বামী–স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায় হাতাহাতিও হয়। পরে ছোট ছেলেটিকে নিয়ে তানজিল ঘুমিয়ে পড়ে। সেহরি খাওয়ার জন্য ঘুম থেকে জেগে দেখে স্মৃতি পাশে নেই। বারান্দায় গিয়ে দেখে গলায় উড়না পেচিয়ে বারান্দার গ্রিলের সঙ্গে ঝুলে আছে। পরে তাড়াতাড়ি নকলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের মিয়া দৈনিক সত্যকথা প্রতিদিন কে বলেন, এ ঘটনায় আমরা নিহতের স্বামী তানজিলকে আটক করেছি। মরদেহ থানা হেফাজতে রয়েছে। দুপক্ষের পরিবারের লোকজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। তারা এলেই পরবর্তী আইনি কার্যক্রম নেওয়া হবে।