স্বাধীনতার ৪৪ বছরেও নির্ভেজাল-বস্তুনিষ্ঠ গণতন্ত্র আইনের শাসন নাই

 

 

politisian-nurul-islam-monjur-www-jatirkhantha-com-bd

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে দক্ষিণাঞ্চল: বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে দক্ষিণাঞ্চল পর্ব ৪ :-

1

জাতিরকন্ঠ রিপোর্ট  : একেকটি করিয়া সুদীর্ঘ ৪৪টি বছর অতিক্রান্ত হইয়া গেল, কিন্তু দুর্ভগ্যবশত আজ অবধি বাংলার দরিদ্র জনগনের স্বাধীনতা অর্জিত হয় না। অর্জিত হয় নাই স্বাধীন সার্বভৌম সংসদ। প্রতিষ্ঠিত হয় নাই নির্ভেজাল ও বস্তুনিষ্ঠ গণতন্ত্রসহ আইনের শাসন ও দুর্নীতিমুক্ত সমাজ। অধিকন্তু দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির সীমাহীন প্রসার ঘটিয়াছে।

b একথা বলা নিষপ্রয়োজন যে, একটি দেশের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা ব্যতিত রাজনৈতিক স্বাধীনতা অর্থহীন। আমরা ভৌগলিক স্বাধীনতা অর্জন করিয়াছি। অর্থনৈতিক স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠার জন্য প্রয়োজন নির্ভেজাল গণতান্ত্রিক শাসন ব্যাবস্থাসহ মুক্ত অর্থনীতি। মূলত গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থায় একক নেতৃত্বের কোন অবকাশ নেই।

গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার ভিত্তি হইল (কালেকটিভ লিডারশীপ) সমগ্রিক ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্ব, সহযোগীতা ও সকলের সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে পার্টির গৃহিত কর্মসূচি বাস্তবায়ন। সbbর্বোপরি জনগনের সার্বিক কল্যাণ সাধন।

বৃহত্তর বরিশালবাসীর অফুরন্ত, অকৃত্রিম ভালবাসা ও আন্তরিক সহযোগীতার জন্যে তাঁহাদের নিকট আমি চীর কৃতজ্ঞ।

আমার গনসংযোগ শুরু হয় মহ্যাবিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় প্রবেশের প্রথম পর্বেই ছাত্র আন্দোলনের মধ্য দিয়া।

স্বাধীনতাপূর্বকালে তদানিন্তন পূর্ব পাকিস্তান শাসনামলে পটুয়াখালী, ভোলা ও পিরোজপুর মহকুমা বৃহত্তর বরিশাল জেলার অন্তরভুক্ত ছিল।

সর্বমোট ৩৪টি থানাসহ পরবর্তীকালে বিএনপি সরকার বৃহত্তর বরিশাল জেলার সকল থানা ও জেলা সমূহের সমন্বয়ে বরিশাল বিভাগ সৃষ্ঠি করে, আর এই বিভাগের হেডকোয়ার্টার হিসেবে রুপান্তরিত বরিশাল শহরকে। বৃহত্তর বরিশালের জনগন কৃতজ্ঞতাভরে স্মরণ করিবেন বিএনপি সরকারের উক্ত প্রশাসনিক অবদানকে।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com