সিলেটে গোল্ড-স্মামলার বিমান মেকানিক

সিলেট প্রতিনিধি :  সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সংঘবদ্ধ  সোনা চোরাচালানি চক্রের সক্রিয় সদস্য বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের এয়ারক্রাফট মেকানিক sylhet-gold-www.jatirkhantha.com.bdঅ্যাসিসটেন্ট মো. কারিমুল ইসলাম পাকরাও হয়েছে।তার কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে ৬০টি সোনার বার। জব্দ করা এসব সোনার ওজন প্রায় সাত কেজি। প্রতিটি বারের ওজন ১১৬ গ্রাম।সিলেট বিমানবন্দর কাস্টমস ও বিমানের কেবিন ক্রুদের সহযোগিতায় বুধবার সন্ধ্যায় এসব সোনা জব্দ করা হয়।

এই সোনা কারিমুল ইসলামের প্যান্টের মধ্যে বিশেষভাবে লুকায়িত ছিল। কারিমুল এর আইডি নম্বর-০০১৩২৭। তাঁর বাড়ি সিরাজগঞ্জের পাথারপাড়ায়। এই বিমানকর্মী ২০১৫ সাল থেকে সিলেট এয়ারপোর্টে কর্মরত আছেন।শুল্ক গোয়েন্দারা জানান, ওইদিন বিকেল ৪টা ৫০ মিনিটে ফ্লাই দুবাইয়ের FZ 595 ফ্লাইটটি দুবাই থেকে সিলেট অবতরণ করে।

গোপন তথ্যের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দা দল বিশেষ নজরদারি করতে থাকে। উড়োজাহাজের ফ্লাইটটি অবতরণের পর পর কারিমুল ইসলাম ভেতরে পরিষ্কার করার সময় সোনার বারের পিসগুলো বিমানের সিট থেকে তুলে নিজের প্যান্টে লুকিয়ে ফেলেন।

এ সময় শুল্ক গোয়েন্দা দল হাতেনাতে সোনাসহ তাঁকে ধরে ফেলে।এ ব্যাপারে আটক বিমানের মেকানিক মো. কারিমুল ইসলামকে শুল্ক আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আটক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। সোনা চোরাচালানে সহায়তার জন্য তাঁর  বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাঁকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করা হবে। সিলেট বিমানবন্দর কাস্টমস কর্মকর্তারা এই অভিযানে অংশ নেন।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com