শহর রক্ষা বাঁধ ভেঙে সৈয়দপুর বন্যা

সৈয়দপুর  থেকে শফিউল আলম বাবুল : বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকে পড়ছে সৈয়দপুর শহরে। ছবিটি আজ রোববার সকালে বসুনিয়াপাড়া saidpur-www.jatirkhantha.com.bdএলাকা থেকে তোলা। ছবি: প্রথম আলোচার দিনের টানা বর্ষণে নীলফামারীর সৈয়দপুরের খড়খড়িয়া নদীর বাঁ তীরে পশ্চিম পাটোয়ারীপাড়া এবং বসুনিয়া এলাকায় শহর রক্ষা বাঁধের প্রায় ১০০ মিটার বিলীন হয়ে গেছে।

বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকে পড়ায় ভয়াবহ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। ওই এলাকায় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। আজ রোববার সকালে সৈয়দপুর উপজেলা সদরের কুন্দল, পাটোয়ারীপাড়া, নয়াবাজার, সুড়কিমিল, কাজীপাড়া, হাতিখানা, নতুন বাবুপাড়া, মিস্তিরিপাড়া এবং বাঁশবাড়ি মহল্লা প্লাবিত হয়। এসব এলাকার কোথাও কোথাও কোমরসমান পানি।

কুন্দল এলাকার বাসিন্দা মকবুল হোসেন জানান, গতকাল শনিবার রাতে পশ্চিম পাটোয়ারীপাড়ার কাছে বিকট শব্দে শহর রক্ষা বাঁধটি ভেঙে যায়। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে আশপাশের মানুষ। অনেকে গরু-ছাগল ও বাড়ির আসবাবপত্র নিয়ে দিগ্‌বিদিক পালাতে থাকে। স্থানীয় বাসিন্দা মোস্তফা ফিরোজ জানান, আজ সকালে শহরের উত্তর দিকে বসুনিয়াপাড়া এলাকায়ও শহর রক্ষা বাঁধটি ভেঙে যায়।
saidpur-www.jatirkhantha.com.bd.1
সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার বলেন, এমনিতেই কয়েক দিনের বর্ষণে শহরের অধিকাংশ এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। তার ওপর শহর রক্ষা বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় সেনানিবাস এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে পানি ঢুকে পড়েছে। রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতির পরিমাণ ৫০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। সৈয়দপুর বিমানবন্দরেও যেকোনো সময় বন্যার পানি ঢুকে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্ট লোকজন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) সৈয়দপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী শহীদুল ইসলাম জানান, শহর রক্ষা বাঁধের দুটি স্থানে প্রায় ১০০ মিটার বাঁধ ভেঙে গেছে। ভাঙন রোধে সেখানে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বজলুর রশীদ জানান, বন্যার ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে বলা সম্ভব হচ্ছে না। তবে কাশিরাম ও খাতামধুপুর ইউনিয়নের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ত্রাণ বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com