মোয়াল্লেম ফি ১৫০০ রিয়াল করায় ১৮ হাজার বাংলাদেশির হজ অনিশ্চিত

জেদ্দা প্রতিনিধি :  সৌদি সরকারের ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে মোয়াল্লেম ফি ১৫০০ রিয়াল নির্ধারণ করায় বাংলাদেশের প্রায় ১৮ হাজার ???????????????????????????????মানুষের হজ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার মক্কায় সংবাদ সম্মেলনে এমন আশঙ্কার কথা জানিয়ে এর সমাধানে বাংলাদেশ সরকারের হস্তক্ষেপ চেয়েছে ৯১টি হজ এজেন্সি।

বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত ২০১৬ সালের হজ প্যাকেজে ‘ডি’ গ্রেডের মোয়াল্লেম ফি নির্ধারিত ছিল ৫২০ রিয়াল। অথচ সৌদি সরকার পরে তা বাড়িয়ে করে ৭২০ রিয়াল। কিন্তু এ বছর ‘ডি’ গ্রেডের মোয়াল্লেম ফি’র কোটা ইতোমধ্যে পূরণ হয়ে গেছে। আর চলতি বছর থেকে চালু হওয়া ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে মোয়াল্লেম ফি ধরা হয়েছে ১৫০০ রিয়াল।

ফলে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে মোয়াল্লেম ফি এই ১৫০০ রিয়াল জমা দিয়েই হজ করার সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশের প্রায় ১৮ হাজার হজপ্রত্যাশীর। হজ করতে হলে এদেরকে এই বাড়তি খরচ দিয়েই ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন করতে হবে। এ অবস্থায় ৯১টি হজ এজেন্সির মালিক প্রতিনিধিরা মক্কায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে  নিজেদের এ হতাশার কথা জানান।

হজ এজেন্সি মালিকরা বলছেন, সংকট নিরসনে সৌদি হজ ট্রেডিংয়ের চেয়ারম্যান রাশেদ বদর ও সচিব ওমর আকবরের সঙ্গে বৈঠক করেও কোনো কাজ হয়নি। মোয়াল্লেম বিষয়ে বাংলাদেশ হজ মিশন ও কনস্যুলেট আগে থেকে কোনো তথ্য না জানানোয় এ ধরনের সংকটে পড়তে হয়েছে তাদের।

আর এজন্য প্রায় ১৮ হাজার হজপ্রত্যাশীকে গুনতে হবে বাড়তি খরচ যা এ মুহূর্তে তাদের পক্ষে সম্ভব নয় এবং এর দায়ভার মোয়াল্লেমরাও নেবেন না।তাই সংকট কাটাতে শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী ও ধর্মমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন হজ এজেন্সি মালিকরা।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com