মনজুরের নেতৃত্বে বরিশালে ভাষা আন্দোলন-২১ দফা’য় স্বাধীনতা আন্দোলনের বীজ বপন

 

politisian-nurul-islam-monjur-www-jatirkhantha-com-bdবাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে দক্ষিণাঞ্চল: বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে দক্ষিণাঞ্চল পর্ব ৫ :-

১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারির রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু-

১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারির রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু-

জাতিরকন্ঠ রিপোর্ট   :  ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারির রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে সক্রিয় অংশ গ্রহণ করি এবং বরিশাল জেলার রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের সর্বদলীয় সংগ্রাম কমিটির সদস্য নির্বাচিত হই। উক্ত কমিটির আহবায়ক ছিলেshaheed_minar-www-jatirkhantha-com-bdন প্রখ্যাত নেতা মরহুম আবুল হোসেন ভাই (প্রয়াত)।

52-vasa-www-jatrikhantha-com-bdরাষ্ট্রভাষা আন্দোলনকে শক্তিশালী, গতিশীল করার জন্যে বৃহত্তর বরিশাল জেলার বিভিন্ন মহকুমায় ও থানায় সভা সমাবেশের আয়োজন ও সমাবেশে 52যোগদান করিয়াছি।

১৯৫৩ সালের বৃহত্তর বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হইয়া সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধিকল্পে ছাত্রনেতা হিসেবে বৃহত্তর বরিশাল জেলার অন্তরভুক্ত ৩৪টি থানা একাধিকবার সফর করিয়াছি।
bangobandu
১৯৫৪ সালেঅনুষ্ঠিত প্রাদেশিক পরিষদের সাধারন নির্বাচনে যুক্তফ্রন্ট প্রণীত ২১ দফা কর্মসূচি (দাবি) বাস্তবায়নের জন্য যুক্তফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থীদের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারাভিযান উপলক্ষে বৃহত্তর বরিশাল জেলার বিভিন্ন নির্বাচনী এলাকায় সভার আয়োজনsher-e-bangla করিয়াছি।
যুক্তফ্রন্টের নেতৃত্ব দেন মরহুম সোহরাওয়ার্দী সাহেব ও মরহুম মজলুম জননেতা মওলানা ভাসানী সাহেব52-vasa-www-jatrikhantha-com-bdসহ মরহুম শেরে বাংলা একে ফজলুল হক সাহেব।

প্রকৃতপক্ষে ২১ দফা কর্মসূচির মাধ্যমে পূর্ব বাংলার স্বায়ত্বশাসনের দাবি সোচ্চার হয় এবং স্বাধীনতা আন্দোলনের বীজ বপন করা হয়।
উক্ত নির্বাচনে তদানীন্তন পূর্ব-পাকিস্তানের মূখ্যমlanguage-movement-www-jatirkhantha-com-bdন্ত্রী জনাব নুরুল আমিন খান সাহেব নান্দাইল নির্বাচনী এলাকা হইতে ছাত্রনেতা খলেক নেওয়াজের কাছে শোচনীয়ভাবে পরাজয় বরণ করেন।

এই নির্বাচনে যুক্তফ্রন্ট প্রায় শতকারা ৯৯টি আসনেই বিজয়ী হয়।মুসলিম লীগ দলের প্রতীক ছিল হেরিকেন ও যুক্তফ্রন্টের প্রতীক ছিল নৌকা।
১৯৫৪ সালে নদীমাতৃক বৃহত্তর বরিশাল জেলায় সড়কপথের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি না হওযায় নদীপথ ও নৌযানই যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম।

মাঝিমাল্লা চালিত কাঠের  নৌকা এবং ঐ সকল নৌকার সাথে বড়বড় নৌকা ‘গয়না নামে’ পরিচিত ও ব্যবহৃত হইত যাত্রী পরিবহনের জন্য। সীমিত যন্ত্রচালিত যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল শুরু হইয়াছিল। যন্ত্রচালিত নৌকার বহর ও ব্যবহার তখন পর্যন্ত শুরু হয় নাই।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com