বিজ্ঞানের সাফল্যে তৌফা তহুরা’র শরীর আলাদা হলো

মেডিকেল রিপোর্টার :  অবশেষে তৌফা ও তহুরা পৃথক হলো। ওরা এখন আলাদা শরীরের মানুষ। ডাক্তারদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দীর্ঘ ????????????????????????????অপারেশনের পর আলাদা হলো জোড়া লাগানো শিশু তৌফা ও তহুরা। এখন পর্যন্ত এ দুই শিশু সুস্থ আছে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তৌফা ও তহুরার অস্ত্রোপচার শুরু হয়। দুপুরে অপারেশন শেষে এ কথা জানান ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান আশরাফুল হক কাজল।

তিনি জাতিরকন্ঠ কে বলেন, শিশু তৌফা ও তহুরাকে আলাদা করার পর দুটো অপারেশন থিয়েটারে রেখে দুই দলে ভাগ হয়ে কাজ করছেন সার্জনরা। তবে পুরো প্রক্রিয়া শেষ করতে আরো সময় লাগবে। আশরাফুল হক বলেন, দুই শিশু তৌফা ও তহুরার স্পাইনাল কর্ড, মেরুদণ্ড, পায়খানার রাস্তা ও প্রস্রাবের রাস্তা আলাদা করা হয়েছে। আশা করছি পুরো চিকিৎসা সফলতার সঙ্গে শেষ হবে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে পাইগোপেগাস শিশু আলাদা করার ঘটনা এটি প্রথম। এর আগে অন্যান্য হাসপাতালে তিন জোড়া শিশুকে অস্ত্রোপচার করে আলাদা করা হয়েছে, তাদের ধরন ছিল আলাদা।

আশরাফুল হক ছাড়াও শিশু তৌফা ও তহুরার চিকিৎসা করছেন, ডাক্তার রাজিউল হাসান, এস এম শফিকুল আলম, অসীত চন্দ্র সরকার, আব্দুল হানিফ ও কানিজ হাসিনা। জন্মের পর থেকে ১০ মাস তোফা ও তহুরা একসঙ্গে বড় হয়েছে। পিঠের কাছ থেকে কোমরের নিচ পর্যন্ত তারা পরস্পরের সঙ্গে সংযুক্ত ছিল।

দুজনের পায়খানার রাস্তা ছিল একটি। তবে মাথা-হাত-পা ছিল আলাদা। তোফা-তহুরা যেভাবে জোড়া লাগানো ছিল, চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে বলা হয় পাইগোপেগাস। শিশু দুটোর অস্ত্রোপচারে বিভিন্ন বিভাগের ১৬ জন সার্জন যুক্ত ছিলেন।

 

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com