ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একঘুয়েমি-৭ সরকারি কলেজ শিক্ষার্থীরা রাজপথে

স্টাফ রিপোর্টার :  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একঘুয়েমি’র কারণে তাদের আওতাধীন  ৭ সরকারি কলেজ শিক্ষার্থীরা রাজপথে বিক্ষোভে ssনেমেছে। সাতটি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা বলেছে, রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করতে হবে ঢাবি ভিসিকে। এ দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে জাতীয় জাদুঘরের সামনের রাস্তায় তাঁরা অবস্থান নেন।

সাতটি সরকারি কলেজ হলো ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, কবি নজরুল ইসলাম কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ ও মিরপুর বাঙলা কলেজ। সকালে সড়কের উত্তর পাশে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেন। কিন্তু পুলিশ তাঁদের সেখান থেকে সরে যেতে বলে। শিক্ষার্থীরা রাস্তায় মানববন্ধনের মতো করে দাঁড়িয়ে যান।

পুলিশ আবার তাঁদের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের দিকে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। এরপর পুলিশ তাঁদের দক্ষিণ দিকে নিয়ে যায়।
শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন। ঢাকা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শহিদুল ইসলাম বলেন, রুটিনসহ পরীক্ষার সময় ঘোষণা করতে হবে। আর এই ঘোষণা আসতে হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছ থেকে।

প্রায় একই ধরনের কথা বলেন ইডেন মহিলা কলেজের মাস্টার্সের ছাত্রী নাসরিন সুলতানা ও মিরপুর বাঙলা কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মো. জাহিদুল ইসলাম।ঢাকার একটি কলেজের অধ্যক্ষ জানান, ইতিমধ্যে বিভিন্ন পরীক্ষার সময় চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের কয়েকজন বলেন, তাঁরা মৌখিক কোনো ঘোষণায় বিশ্বাসী নন। এ জন্য তাঁরা রুটিনসহ পরীক্ষার সময়সূচি চান।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে এই সাত কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়। আগে কলেজগুলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ছিল। এই কলেজগুলোর শিক্ষার্থীরা দ্রুত সময়ের মধ্যে পরীক্ষা নেওয়াসহ কয়েকটি দাবিতে আন্দোলন করছেন।

এরআগে গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সঙ্গে অনুষ্ঠিত সভায় এসব কলেজের বিভিন্ন পরীক্ষার সময় ঠিক করা হয়। এর মধ্যে মাস্টার্স শেষ পর্বের পরীক্ষা শুরু হবে ১০ সেপ্টেম্বর। অনার্স তৃতীয় বর্ষের শুরু হবে ১৬ অক্টোবর। ডিগ্রি প্রথম ও তৃতীয় বর্ষ পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ৪ নভেম্বর। এভাবে আরও কয়েকটি পরীক্ষার সময় ঠিক করা হয়েছে।

সভায় আরও সিদ্ধান্ত হয়, অনার্সে খাতা মূল্যায়নে দুজন পরীক্ষক থাকবেন। এ ছাড়া সাত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আলাদা ভর্তি পরীক্ষা হবে। শুধু এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর ডিনস কমিটির সভায় নিয়মনীতি ঠিক করা হবে।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com