‘ছগির’ বাহিনীর ২২ কোটি টাকার কোকেন চোরাচালান

খুলনা প্রতিনিধি : মঠবাড়িয়ার  ‘ছগির’ বাহিনীর ২২ কোটি টাকার কোকেন চোরাচালান নিয়ে তোলপাড় চলছে খুলনায়। জানা গেছে, khulna koken-22cror-www.jatirkhantha.com.bd.1সোয়া দুই কেজি কোকেনসহ মাদক চোরাচালান চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। শনিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব-৬ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাত শনিবার সকাল পর্যন্ত খুলনা নগরীর ময়লাপোতাসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে কোকেনসহ তাদের আটক করা হয়। উদ্ধার কোকেনের আনুমানিক মূল্য ২২ কোটি ৫০ লাখ টাকা। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কোকেনের এতবড় চালান আটক এই প্রথম বলে জানান তিনি।

আটকরা হলেন, চোরাচালান চক্রের ‘মূলহোতা’ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার দাউদখালী গ্রামের আরিফুর রহমান ওরফে ছগির (৬০), খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতী গ্রামের সোহেল রানা (৩৫), ডুমুরিয়া উপজেলার ভান্ডারপাড়া গ্রামের বিকাশচন্দ্র বিশ্বাস (৩৫), খুলনা নগরীর টুটপাড়া কবরখানা মোড়ের ২৫১ আকাশ ইল্লিল ম্যানসনের বাসিন্দা এস এম এরশাদ হোসেন (৪৮), দাকোপ উপজেলা সদর চালনার বৌমার বটতলা গ্রামের বিকাশচন্দ্র মণ্ডল (৫৫) এবং একই উপজেলার মৌখালী গ্রামের ফজলুর রহমান ফকির (৩৭)।
khulna koken-22cror-www.jatirkhantha.com.bd
খুলনা সদর দপ্তরে আয়োজিত ওই প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন,  চক্রটির ‘মূলহোতা’ সগির নগরীর ১৮/২ গগনবাবু রোডের একটি বাড়িতে ভাড়া থেকে দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা করে আসছেন।গোপন খবরে শুক্রবার রাতে র‌্যাবের একটি দল গরীর ময়লাপোতা মোড় থেকে মাদক বিক্রির সময় অভিযান চালিয়ে প্রথমে চক্রের সদস্য সোহেল রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার শরীর তল্লাশি চালিয়ে ২৩০ গ্রাম কোকেন পাওয়া যায়।

তিনি বলেন, তারপর তার স্বীকারোক্তিতে চক্রের ‘মূলহোতা’ ছগিরের নাম জানা যায়।পরে ছগিরকে তার বাসা থেকে গ্রেপ্তারের পর তাদের নিয়ে রূপসা উপজেলার রাজাপুর গ্রাম বিকাশচন্দ্র বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করা হয়।বিকাশের কাছ থেকে বাকি কোকেন উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যে চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হয়।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com