এসিডদগ্ধ নারীও পারে-লন্ডনের ফ্যাসন

লন্ডন থেকে শীলা আফরোজ  :  এসিডদগ্ধ নারীও পারে। এবার সে প্রমাণ দিলেন লন্ডনের ফ্যাসন’শোতে বাংলাদেশের এসিডদগ্ধ নারীরা।  জানা গেছে, acid-london-www.jatirkhantha.com.bdগত একশ বছরের মধ্যে বর্তমানে বাংলাদেশের নারীরা সবচেয়ে কম এসিড আক্রান্ত হন। বাংলাদেশে এ ক্ষেত্রে এমন অগ্রগতি হলেও পশ্চিমা দেশ যুক্তরাজ্যের অবস্থা অবনতির দিকে। কারণ, বর্তমান বছরের প্রথম ছয় মাসে দেশটিতে প্রায় ৪০০ এসিড হামলার ঘটনা ঘটেছে।এ পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের এসিডদগ্ধ নারীদের একটি দল সম্প্রতি লন্ডনে পৌঁছেছেন। তাঁরা সেখানে একটি ফ্যাশন শোতে অংশ নিয়েছেন।

লন্ডনে তাঁরা এসিড হামলা নিরুৎসাহিত করতে এবং সচেতনতা বৃদ্ধি করতে প্রচার চালাবেন। সেইসঙ্গে সেখানকার এসিডদগ্ধ নারীসহ সবাইকে নিজেদের টিকে থাকার গল্প শোনাবেন তাঁরা। এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশের এসিডদগ্ধ নারীরা সেখানে একটি ফ্যাশন শোতে যোগ দেবেন।

লন্ডনের ফ্যাশন শোতে যোগ দিতে যাওয়া এসিডদগ্ধ নারী দলের একজন নুরুন নাহার। তিনি মাত্র ১৫ বছর বয়সে এসিড হামলার শিকার হন।
নুরুন নাহার বলেন, ‘এসিডদগ্ধ হওয়ার পর আমার মনে হয়েছিল, জীবন বুঝি এখানেই থেমে গেল। আমি বোধ হয় আর পড়াশোনায় ফিরে যেতে পারব না।’ কিন্তু নুরুন নাহার এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। নিজের সক্ষমতা বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এখন আমার মনে হয়, যা চাই, তার সবই আমি করতে পারব। আমি হয়তো আমার এসিডদগ্ধ মুখমণ্ডল পরিবর্তন করতে পারব না, তবে জীবন পরিবর্তন করতে পারব।’

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com