এনপিবির ১৮ কোটি ডলার লুটপাট!

বিশেষ প্রতিনিধি  :  পাকিস্তানের এনবিপি ব্যাংকের কোটি কোটি টাকা লুটপাটের ঘটনায় তোলপাড় চলছে। এ ঘটনায় npb-www.jatirkhantha.com.bdব্যাংটির সাবেক প্রেসিডেন্ট সাঈদ আলী রাজাসহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে এনবিপির বাংলাদেশ শাখার মহাব্যবস্থাপক ওয়াসিম খানও রয়েছেন।  অভিযোগে বলা হয়েছে চক্রটি ১৮ কোটি ডলার লুটপাট করেছে। এই লুটপাট হয়েছে এনপিবির বাংলাদেশ শাখার মাধ্যমে।

সূত্র জানায়, সাঈদ আলী রাজা ও কিছু কর্মকর্তা এনবিপির বাংলাদেশ শাখায় অর্থায়ন-সুবিধা অনুমোদন ও পুনর্বিবেচনার মাধ্যমে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন বলে অভিযোগ এনে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করে এনএবি। ক্ষমতার ওই অপব্যবহার করায় পাকিস্তানের জাতীয় রাজস্বের সাড়ে ১৮ কোটি ডলার ক্ষতি হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

দুর্নীতির অভিযোগে পাকিস্তানের অন্যতম বাণিজ্যিক ব্যাংক ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তানের (এনবিপি) সাবেক প্রেসিডেন্ট সাঈদ আলী রাজাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের হাইকোর্ট সাঈদ আলীর জামিন আবেদন নাকচ করে দিলে তাঁকে গ্রেপ্তার করে ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি)। এই দুর্নীতিতে কয়েকজন বাংলাদেশি জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে।

এনএবির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কমপক্ষে ১৬ জন এই দুর্নীতি কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত। যাঁদের মধ্যে সলিমুল্লাহ, প্রদীপ, কাজী নিজামসহ কয়েকজন বাংলাদেশি নাগরিক আছেন। এদিকে গত শুক্রবার পাকিস্তানের গণমাধ্যমে দ্য ডনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

সাঈদ আলী রাজা ও কিছু কর্মকর্তা এনবিপির বাংলাদেশ শাখায় অর্থায়ন-সুবিধা অনুমোদন ও পুনর্বিবেচনার মাধ্যমে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন বলে অভিযোগ এনে তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করে এনএবি। ক্ষমতার ওই অপব্যবহার করায় পাকিস্তানের জাতীয় রাজস্বের সাড়ে ১৮ কোটি ডলার ক্ষতি হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী সাঈদ আলী রাজা ও আরেক অভিযুক্ত ইমরান বাট এবং এনবিপির বাংলাদেশ শাখার মহাব্যবস্থাপক ওয়াসিম খানকে গ্রেপ্তার করেছে এনএবি। জামিন আবেদনের শুনানিতে এনএবি জানায়, রাষ্ট্রীয় কোষাগারে ক্ষতিসাধনের অভিযোগে তাঁদের অভিযুক্ত করা হয়েছে।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com