অনিকের শেষ স্ট্যাটাসে আত্মহত্যার ইঙ্গিত নেই

Aneek-www.jatirkhantha.com.bd

স্টাফ রিপোর্টার :  অনিকের শেষ স্ট্যাটাসে আত্মহত্যার ইঙ্গিত নেই।  প্রশ্ন উঠেছে কেন অনিক আত্মহত্যা করবে?  কার রোষানলে’ই বা লাশ হতে হলো তাঁকে? এমন নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে এমপি পুত্র অনিকের লাশ হওয়া নিয়ে।খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, অনিকের শেষ ফেসবুক স্ট্যাটাস ছিল ‘তোর জন্য চিঠির দিন।’ যে স্ট্যাটাসটি অনিক ভোর ৪টা ০৫ মিনিটে ফেসবুকে আপডেট করেছেন।

কিন্তু সকালেই ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে পাওয়া গেল তার ঝুলন্ত লাশ। অনিক ওয়ার্কার্স পার্টির কর্মী ছিল।সরেজমিনে জানা গেছে, অনিক আজিজ স্বাক্ষর-সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহর একমাত্র ছেলে। ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছিলেন। থাকতেন সংসদ সদস্যদের জন্য বরাদ্দকৃত ৫নং ন্যাম ভবনের ৫০৪ নম্বর কক্ষে। আরেকটি রুমে থাকতেন ছোট বোন সৃষ্টি।

এদিকে সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহর একান্ত সচিব জাহাঙ্গির হোসেন জাতিরকন্ঠকে জানান, রোববার ভোর ৬টার দিকে এমপি লুৎফুল্লাহ সাতক্ষীরা থেকে ঢাকার ন্যাম ফ্লাটে গিয়ে পৌঁছান। অনেক ডাকাডাকির পর দরজা না খুললে এক পর্যায়ে দরজা ভেঙে ইন্টারনেট লাইনের তার দিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। অনিকের চাচা শরিফুল্লাহ কায়সার সুমন জানান, ময়নাতদন্ত শেষে অনিকের মরদেহ সাতক্ষীরায় নিয়ে আসা হবে।

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com